ঢাকা,  বৃহস্পতিবার  ১৩ জুন ২০২৪

নিউজ জার্নাল ২৪ :: News Journal 24

নাটকীয় ম্যাচে ৫ রানে হারল গুজরাট

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:২৬, ৩ মে ২০২৩

নাটকীয় ম্যাচে ৫ রানে হারল গুজরাট

শেষ তিন ওভারে যখন ৩৭ রান দরকার তখন খলিল আহমেদকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে আউট হন অভিনব। সমীকরণ তখন কেবল কঠিন হয়ে উঠছিল গুজরাটের জন্য। তবে মাঠে নেমেই বদলে ফেললেন সব সমীকরণ। শেষ দুই ওভারে গুজরাটের চাই ৩৩ রান। অ্যানরিখ নরকিয়া প্রথম তিনটা ডেলিভারি ঠিকঠাকই করলেন। হাফ সেঞ্চুরিয়ান হার্দিকের বিপক্ষে দিলেন মোটে তিন রান।

এরপর ভুল করে বসলেন সাউথ আফ্রিকার এই পেসার। লো ফুলটস দিতেই সেটা স্কয়ার লেগ দিয়ে উড়িয়ে ছক্কা মারলেন রাহুল তেওয়াতিয়া। পরের তিন বলে মেরেছেন আরও দুই ছক্কা। নরকিয়ার এক ওভারে ২১, ম্যাচের ড্রাইভিং সিটে তখন গুজরাট। শেষ ওভারে ১২ রান নিলেই ম্যাচ হার্দিকের দলে। ইশান্ত শর্মা অবশ্য সেটা হতে দেননি। প্রথম তিন বলে ৩ রান দেয়া ডানহাতি এই পেসার চতুর্থ বলে ফিরিয়েছেন তেওয়াতিয়াকে। ইশান্তর স্লোয়ার ডেলিভারিতে রাইলি রুশোর হাতে ধরা পড়তে হয় তাকে। দুই বলে ৯ রানের প্রয়োজন হলে সেই সমীকরণ মেলাতে পারেননি রশিদ খান। তাতে আহমেদাবাদে লো স্কোরিং থ্রিলারে দিলি­ ক্যাপিটালসের কাছে ৫ রানে হারতে হয় গুজরাটকে।

আহমেবাদে এদিন শুরু থেকেই খানিকটা বাড়তি সুবিধা পেয়েছেন পেসাররা। মোহাম্মদ শামির পর সেটার ফায়দা নিতে পেরেছেন দিলি­র পেসাররাও। ইনিংসের প্রথম ওভারেই গতি আর সুইংয়ে বাজিমাত করেছেন খলিল। বাঁহাতি এই পেসারের অফ স্টাম্পের বাইরে পড়ে বেরিয়ে যাওয়া ডেলিভারিতে ড্রাইভ করতে চেয়েছিলেন ঋদ্ধিমান সাহা। তবে ব্যাট চালাতে খানিকটা দেরি করেছিলেন তিনি। তাতেই এজ হয়ে ফিল সল্টের গ্লাভসে ক্যাচ দিয়ে শূন্য রানে ফিরতে হয় ডানহাতি এই উইকেটকিপার ব্যাটারকে। সুবিধা করতে পারেননি আরেক ওপেনার শুভমান গিলও। নরকিয়ার সপ্তম স্ট্যাম্পের ডেলিভারিতে ড্রাইভ করতে গিয়ে পয়েন্টে থাকা মানিষ পান্ডেকে ক্যাচ দেন ডানহাতি এই ব্যাটার। দারুণ ছন্দে থাকা গিল এদিন আউট হয়েছেন মাত্র ৬ রানে।

আগের ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক হাফ সেঞ্চুরিতে গুজরাটকে জিতিয়েছিলেন বিজয় শংকর। তবে এদিন ব্যাট হাতে ৬ রানের বেশি করতে পারেননি চারে নামা এই ব্যাটার। ইশান্তর ১১৯ কি.মি গতির নাকল বলে বোল্ড হয়েছেন বিজয়। এদিকে আইপিএলের এবারের মৌসুমে রান তাড়া করতে নেমে প্রথমবার আউট হয়েছেন ডেভিড মিলার। কুলদীপ যাদবের বলে ফাইন লেগ দিয়ে স্কুপ করতে গিয়ে বোল্ড হয়েছেন সাউথ আফ্রিকার এই ব্যাটার। এরপর ৬২ রানের জুটি গড়ে গুজরাটের বিপর্যয় সামাল দেন হার্দিক ও অভিনব। দেখেশুনে ৪৪ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন হার্দিক। তবে ম্যাচ শেষ না করে ২৬ রানে খলিলকে উইকেট দিয়েছেন অভিনব। শেষ পর্যন্ত গুজরাট থামে ১২৫ রানে। দিলি­র হয়ে দুটি করে উইকেট নিয়েছেন ইশান্ত ও খলিল।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে মাত্র ২৩ রানে ৫ উইকেট হারায় দিলি­। সেখান থেকে জুটি গড়েন অর প্যাটেল ও আমান হাকিম খান। অর ফিরলেও ৪১ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেন আমান। শেষ পর্যন্ত ৫১ রানে আউট হয়েছেন ৫১ রান। এদিকে রিপাল প্যাটেলের ব্যাট থেকে এসেছে ২৩ রান। শেষ পর্যন্ত ১৩০ রান তোলে দিলি­। গুজরাটের হয়ে ১১ রানে ৪ উইকেট নেন শামি।

 

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন